Prottashitoalo

৫ ধরনের ব্যক্তিকে বিয়ে করবেন না !

0 6

লাইফস্টাইল ডেস্ক : ভালোবাসা কিংবা মুগ্ধতা কাজ করতে পারে যে কারও প্রতি, কিন্তু কাউকে বিয়ে করার ক্ষেত্রে আপনাকে প্রাকটিক্যাল হতে হবে। এমন কিছু বৈশিষ্ট্য আছে যা থেকে আপনাকে সাবধান থাকতে হবে। কারণ বিয়ের পর সে আপনার জীবনকে নরকে পরিণত করতে পারে যখন আপনারা একসঙ্গে থাকতে শুরু করবেন। তাই এখানে ৫ ধরনের পুরুষ বা নারীর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে উল্লেখ করা হলো, যাদের বিয়ে করা উচিত নয়। জেনে নিন এবং অবাঞ্ছিত দুর্দশা থেকে নিজেকে রক্ষা করুন-

মিথ্যাবাদী

যে বেশিরভাগ সময় মিথ্যা বলে এবং অনেককিছু গোপন করে। এ ধরনের মানুষের বড় এবং অনেক কুৎসিত গোপন বিয়ের পরে আপনার জীবনকে উল্টে দিতে পারে। অনেক সময় প্যাথলজিকাল মিথ্যাবাদীরা এত বেশি মিথ্যা বলে যে তারা তাদের কথায় বিশ্বাস না করে পারা যায় না, যেন এটি বাস্তব। তাই অহেতুক কষ্ট থেকে বাঁচতে চাইলে এ ধরনের মানুষ এড়িয়ে চলুন। আপনার ভেতরে যদি এমন বৈশিষ্ট্য থাকে তবে তা বাদ দিন। কারণ একজন যোগ্য সঙ্গী খোঁজার পাশাপাশি নিজেকেও সঙ্গী হিসেবে যোগ্য করে গড়ে তুলতে হবে।

নেতিবাচক

এমন এক শ্রেণির লোক আছে যারা সব সময় হাহাকার করে। তারা অন্যকে বিভিন্নভাবে বিরক্ত করে এবং খুব নেতিবাচক। অতীতে যদি কেউ তাদের আঘাত করে, তবে তারা তাকে ছেড়ে দেয় না এবং এটি সব সময় তাদের প্রভাবিত করে। কিন্তু কোনো ভুলের দায়ও তারা নেবে না। তারা সব সময় বলতে থাকবে যে আজ তারা যা ভুল করেছে তা অন্য কারও কারণে। আপনি নিশ্চয়ই এমন নেতিবাচক চরিত্রের মানুষের সঙ্গে জীবন জড়াতে চান না!

অনিশ্চিত

এই ধরনের লোকেরা আপনার আবেগকে চুষে নেয় এবং এমনকি যদি তারা আপনাকে বিয়ে করে তবে তারা প্রতিশ্রুতি সম্পর্কে সর্বদা অনিশ্চিত থাকবে। তারা সবসময় আপনার সম্পর্কে উদাসীন থাকবে, আপনি যাই করেন না কেন। এগুলো হলো সেই নেতিবাচকতা যা আপনাকে আপনার নিজের ভালোর জন্য এড়িয়ে চলতে হবে।

ভণ্ড

এমন কিছু মানুষ আছে যারা বলে একরকম কিন্তু করে অন্য কিছু। তারা মনে করে যে নিজে যা করছে তা ঠিক কিন্তু যখন অন্য কেউ একই কাজ করে তখন সেটি ভুল। বিয়ে কোনো ক্ষণস্থায়ী বিষয় নয়। তাই আপনি এ ধরনের বৈশিষ্ট্যের মানুষকে বিয়ের জন্য হ্যাঁ বলবেন না। তাই সঙ্গী নির্বাচনে খুব সতর্ক থাকুন এবং নিজের প্রতি যত্নশীল হোন। এ ধরনের মানুষেরা কিছুদিন পরেই বিরক্তিকর হয়ে ওঠে কারণ এক সময় সে আপনার সঙ্গেও ভণ্ডামি করতে পারে।

আমি এবং আমার

শুরুতে আপনার কাছে এটি তার আত্মবিশ্বাস বলে মনে হতে পারে। আপনি একারণে তার প্রতি আকর্ষণও বোধ করতে পারেন। কিন্তু এ কারণে একটা পর্যায়ে আপনি তার থেকে পালিয়ে বাঁচতে চাইবেন। কারণ তারা সারাক্ষণ নিজেকে নিয়েই ব্যস্ত। নিজের প্রশংসা, নিজের গুণগান তাদের ফুরায় না। তাদের সব চিন্তাধারা নিজেকে কেন্দ্র করে। তারা মনে করে যে পৃথিবী তাদের চারপাশে ঘুরছে এবং তারা মহাকর্ষের কেন্দ্র, মহাবিশ্বের কেন্দ্র। তাদের ‌‘কখনও ভুল হয় না’ এবং আপনি কখনোই তাদের তালিকায় থাকবেন না!

Comments
Loading...