Prottashitoalo

শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে দিল্লিকে হারিয়ে ফাইনালে চেন্নাই

0 8

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) প্রথম কোয়ালিফায়ারে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে দিল্লিকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছে ধোনির চেন্নাই। প্রথম কোয়ালিফায়ারে যে দল জিতবে তারাই সরাসরি ফাইনালের টিকিট কাটবে। এমন সমীকরণে দুবাইয়ে দিল্লি ক্যাপিটালসের মুখোমুখি হয় ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস।

আগে ব্যাট করে ওপেনার পৃথ্বী শ ও অধিনায়ক ঋষভ পন্তের অনবদ্য হাফসেঞ্চুরিতে ৫ উইকেটে ১৭২ রানের লড়াকু পুঁজি পায় দিল্লি। অর্থাৎ আইপিএলে-২১ এর ফাইনালের টিকিট নিশ্চিত করতে চেন্নাই সুপার কিংসের দরকার পড়ে ১৭৩ রান।

আর সেই চ্যালেঞ্জে ঠিকই সফল হয় চেন্নাই। শেষ ওভারে ২ বল বাকি থাকতে লক্ষ্যে পৌঁছে প্রথম দল হিসেবে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে ধোনির চেন্নাই সুপার কিংস।

শেষ দুটি ওভারটি ছিল টানটান উত্তেজনা। জয়ের পাল্লা দুদিকে ছিল ভারী। শেষ দুই ওভারে প্রয়োজন ছিল ২৪ রানের। হাতে ৬ উইকেট। ক্রিজে ৪৯ বলে ৭০ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলা রুতুরাজ গায়কোয়াড় ও অলরাউন্ডার মঈন আলি।

এমন পরিস্থিতিতে হেসেখেলেই ১২ বলে ২৪ রান নেওয়া যায় টি-টোয়েন্টির ধুমধাড়াক্কার মঞ্চে।

কিন্তু ১৯তম ওভারের প্রথম ডেলিভারিতেই উত্তেজনার মাত্রা বাড়িয়ে দেন দিল্লির বোলার আবেশ খান। ডিপ মিড উইকেটে স্পিনার অক্ষর পাটেলকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন রুতুরাজ।

চেন্নাইয়ের ফাইনালে উঠানোর দায়িত্ব এসে পুরোটাই ভর করে অধিনায়ক মাহেন্দ্র সিং ধোনির কাঁধে। ওভারের পঞ্চম বলে ছক্কা হাঁকান ধোনি সেই ডিপ মিড উইকেটের ওপর দিয়ে উড়িয়ে। মঈন আলির বাউন্ডারিসহ সেই ওভার থেকে আসে ১১ রান। অর্থাৎ ৬ বলে করতে হবে ১৩ রান।

শেষ ওভারের শুরুটা যেন আগেরটির প্রতিচ্ছবি। এখানেও প্রথম বলে আউট মঈন আলি। টম কুরানের বলে ডিপ স্কয়ার লেগে রাবাদার হাতে ক্যাচ তুলে দিন মঈন। ১২ বলে ১৬ রান করে সাজঘরে ফেরেন ইংলিশ অলরাউন্ডার।

নিজের আগের ওভারের শেষ বলে একটি উইকেট পা্ওয়ায় হ্যাটট্রিক চান্স পান কুরান। ব্যাটার ধোনি। কিন্তু ভাগ্য সহায় হয়নি কুরানের। এক্সট্রা কভার দিয়ে বল সীমানার বাইরে পাঠান ধোনি। কুরানের ৪র্থ বলটি ইনসাইড এজ হয়ে বল বাউন্ডারির রশি ছুঁয়ে ফেলে।

রান ঠেকাবেন কি চাপের মুখে পরের ডেলিভারি ্ওয়াইড দিয়ে বাড়তি রান যোগ করে দেন কুরান। ফলে চেন্নাইয়ের জয়ের জন্য শেষ ৩ বলে প্রয়োজন পড়ে মাত্র ৪ রান।

বাকি দুই বলের অপেক্ষা করেননি মি. ফিনিশার। ৪র্থ ডেলিভারিকেই চারে পরিণত করে লক্ষ্যে পৌঁছে যান ধোনি।

ভারতীয় সাবেক এ অধিনায়কের ৬ বলে ১৮ রানের ক্যামিও ইনিংসে ২ বল বাকি থাকতেই জয় নিশ্চিত করে চেন্নাই সুপার কিংস।

এর আগে রোববার দুবাইয়ে টস জিতে আগে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় চেন্নাই। তাদের ঝড়ো শুরু এনে দেন ইনিংস উদ্বোধনে নামা পৃথ্বী শ। আরেক ওপেনার শিখর ধাওয়ান ৭ বলে ৭ রান করে সাজঘরে ফেরত যান। কিন্তু ৭ চার ও ৩ ছক্কায় ৩৪ বলে ৬০ রানের ইনিংস খেলেন শ। রবীন্দ্র জাদেজার বলে ফাফ ডু প্লেসিসের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন তিনি।

এর মধ্যে ৮ বলে ১ রান করে শ্রেয়াস আয়ার ও ১১ বলে ১০ রান করে অক্ষর প্যাটেল আউট হলে বেশ বিপদে পড়ে দিল্লি। তবে ৮৩ রানের জুটি গড়ে দলের হাল ধরেন ঋষভ পান্ত ও শিমরন হেটমায়ার।

২৪ বলে ৩৭ রান করে হেটমায়ারের ফিরলেও ৩৫ বলে ৫১ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন পান্ত। ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭২ রানে থামে দিল্লির ইনিংস। চেন্নাইয়ের পক্ষে ৪ ওভার বল করে ২৯ রান দিয়ে দুই উইকেট নেন জশ হ্যাজলউড।

Comments
Loading...