prottashitoalo
Prottashito Alo is an online news portal based on Bangladesh with worldwide influence and readership. Founded in 20th February,2019 published from Dhaka in the Bengali language. It provides updated news faster, informative and authentic news compared to any other newspapers. Based on circulation, Prottashito Alo is the one of the most popular news portals in Bangladesh.

রেখা ও রিয়া একই সুতোয় গাঁথা

১৩

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

বিনোদন ডেস্ক : বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা রেখা। অন্যদিকে কয়েকটি সিনেমায় অভিনয় করলেও সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পরই আলোচনায় এসেছেন অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। কিন্তু ৩০ বছরের ব্যবধানে ঘটা দুইটি ঘটনা তাদের একই সুতোয় গেঁথে দিয়েছে।

অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর ঘটনায় মূল অভিযুক্ত রিয়া চক্রবর্তী। এই অভিনতাকে মাদক সরবরাহ ও সেবনের ঘটনায় ইতোমধ্যে গ্রেপ্তার হয়েছেন রিয়া। তার জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে মুম্বাইয়ের বাইকুল্লা কারাগারে আছেন এই অভিনেত্রী। এখানেই শেষ নয়, ভারতীয় মিডিয়ায় রিয়াকে নিয়ে নানা সমালোচনা হচ্ছে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নানা বিদ্রূপ ও কটাক্ষের শিকার হচ্ছেন রিয়া।

১৯৯০ সালে অভিনেত্রী রেখাও একই রকম পরিস্থিতিতে পড়েছিলেন। সম্প্রতি গায়িকা চিন্ময়ী শ্রীপদা মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারে রেখার বায়োগ্রাফি ‘রেখা: দ্য আনটোল্ড স্টোরি বাই ইয়াসের উসমান’ বইয়ের কিছু অংশ প্রকাশ করে বিষয়টি তুলে ধরেন। এতে তিনি সেই সময় রেখাকে নিয়ে দেওয়া কয়েকটি বক্তব্য উল্লেখ করেছেন।

রেখার স্বামী মুকেশ আগরওয়াল ১৯৯০ সালের ২ অক্টোবর আত্মহত্যা করেন। সুশান্তের মতো মুকেশও সিলিংয়ের সঙ্গে ঝুলে আত্মহত্যা করেছিলেন। এছাড়া তারও বিষণ্নতার কথা জানতে পেরেছিলেন রেখা। কিন্তু ঘটনাটির পর মিডিয়া ট্রায়ালের মুখে পড়েন এই অভিনেত্রী। তাকে ‘ন্যাশনাল ভ্যাম্প’ আখ্যা দেওয়া হয়। রেখাকে নিয়ে নানা কটুক্তি করা হয়।

মুকেশের মা অভিযোগ করেন, রেখাই তার ছেলেকে মেরে ফেলেছেন। এছাড়া মুকেশের ভাইয়ের দাবি, তার ভাই রেখাকে সত্যি ভালোবাসতেন। কিন্তু রেখা তার সঙ্গে যা করছিলেন তা সহ্য করতে পারছিলেন না।

এদিকে নির্মাতা সুভাষ ঘাই ও অনুপম খেরও বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন। ‘রেখা: দ্য আনটোল্ড স্টোরি বাই ইয়াসের উসমান’ বইয়ে উল্লেখ করা হয়েছে, সুভাষ ঘাই বলেছেন, “রেখা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির মুখে কালি লেপে দিয়েছেন। খুব সহজে এটি দূর হবে না। আমার মতে, এখন কোনো সম্ভ্রান্ত পরিবার অভিনেত্রীদের বউ বানাতে দ্বিতীয়বার চিন্তা করবে। এছাড়া পেশাগত দিক সামলানো তার জন্য অনেক কঠিন হবে। কোনো পরিচালক তার সঙ্গে কাজ করতে রাজি হবেন না। দর্শক তাকে কীভাবে ‘ভারতীয় নারী’ কিংবা ‘ন্যায়বিচারের দেবী; হিসেবে মেনে নেবেন?”

অনুপম খের বলেন, ‘রেখা এখন জাতীয় খলনায়িকায় পরিণত হয়েছেন।’ চিন্ময়ী শ্রীপদা মনে করেন, ৩০ বছর পার হলেও এখনো একই ঘটনা ঘটছে ও এর প্রতিক্রিয়াও একই রকম পাওয়া যাচ্ছে।

Get real time updates directly on you device, subscribe now.

Leave A Reply

Your email address will not be published.