Prottashitoalo

‘ভারতে করোনার ভয়াবহতার জন্য দায়ী রাজনৈতিক ও ধর্মীয় জমায়েত’

0 7

করোনার ভারতীয় ভ্যারিয়েন্ট (বি.১.৬১৭) নিয়ে এখন গোটা বিশ্বেই উদ্বেগের বিষয়। ইতিমধ্যে এই ভ্যারিয়েন্টের খোঁজ মিলছে ৪৪টি দেশে। করোনার এই নতুন স্ট্রেনটি অন্যগুলোর চেয়ে অনেক বেশি ভয়ঙ্কর। শুধুমাত্র দ্রুত হারে সংক্রমণ ছড়িয়েই পড়ে না, এই ভাইরাস একবার শরীরে ঢুকলে অনেক বিপদ ঘটতে পারে। এমনকি যারা একবার করোনায় সংক্রমিত হয়েছেন, তাদের শরীরেও নতুন করে বাসা বাঁধতে পারে ভাইরাসের এই নতুন প্রজাতি। শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতিতিও তাকে রুখতে পারে না।

বিশেজ্ঞদের ধারণা, এই ভ্যারিয়েন্টের কারণেই ভারতের অবস্থা এতটা ভয়াবহ হয়ে উঠেছে। তবে দেশটিতে হঠাৎ করে করোনা যেভাবে মারাত্মক আকার নিয়েছে তার জন্য বেশ কয়েকটি সম্ভাব্য কারণ রয়েছে বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। সংস্থাটি মূলত ধর্মীয় ও রাজনৈতিক গণসংযোগ অনুষ্ঠান যা জমায়েতকেই কাঠগড়ায় তুলেছে।

ডব্লিউএইচও জানিয়েছে, ২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতে প্রথম পাওয়া গিয়েছে কোভিড-১৯ এর বি.১.৬১৭ ভ্যারিয়েন্ট। এরপরই এই করোনার ভয়াবহতা কতটা তা নিয়ে চর্চা শুরু হয়। কিন্তু এই বিষয়টিকে তোয়াক্কা না করে ক্রমান্বয়ে ধর্মীয় ও রাজনৈতিক অনুষ্ঠান জারি ছিল ভারতে। যার কারণে দৈনিক সংক্রমণ পৌঁছে গিয়েছে ৪ লাখের কাছে আর মৃত্যু ৪ হাজারের বেশি।

আরো পড়ুন: ইইউ’র সব অভিযোগ ভিত্তিহীন: অ্যাস্ট্রাজেনেকা

পাশাপাশি ডব্লিউএইচও’র অভিযোগ, সঠিকভাবে সামাজিক স্বাস্থ্যবিধিও মেনে চলা হয়নি। অর্থাৎ ভারতের এই পরিস্থিতির জন্য দেশবাসীর ভুলের দিকেই আঙুল তুলছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

এই সপ্তাহের শুরুর দিকে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ঘোষণা করে করোনা (বি.১.৬১৭) ভ্যারিয়েন্টের আরো ৩টি উপ-প্রজাতি রয়েছে। প্রাথমিক কয়েকটি গবেষণায় এই ভ্যারিয়েন্ট আরো বেশি সংক্রামক জানা গেলেও সমস্ত উপ-প্রজাতির ক্ষমতা কতটা তা এখনো বোঝা যাচ্ছে না। আরো তথ্যের প্রয়োজন আছে। তবে ভ্যারিয়েন্টগুলি আসল করোনার থেকে অনেক বেশি ভয়ঙ্কর। সূত্র: জি-নিউজ

Comments
Loading...