Prottashitoalo

বিশ্বে একদিনে করোনায় মৃত্যু ৭ সহস্রাধিক, কমেছে আক্রান্তও

0 11

গোটা পৃথিবীতে এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে করোনাভাইরাসের একাধিক মিউটেটেড স্ট্রেন। এর মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ব্রিটেন, দক্ষিণ আফ্রিকা, ব্রাজিল এবং ভারতীয় স্ট্রেন। এরা শুধু অতি সংক্রামক নয়, মারণ ক্ষমতাও বেশি বলে অনুমান বিশেষজ্ঞদের। এসব নতুন স্ট্রেনের কারণে বিশ্বব্যাপী নতুন করে করোনায় আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে বিশ্বে ৭ হাজার ৮৮৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর আগের দিন এই সংখ্যা ছিল ৮ হাজার ৫২৩। সে হিসাবে মৃত্যুর সংখ্যা কমেছে।

এছাড়া করোনায় শনাক্তের সংখ্যাও কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ লাখ ৫৪ হাজার ৪৭০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর আগের দিন শনাক্ত হয়েছিল ৪ লাখ ৮৯৭ জনের।

ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, রবিবার (২০ জুন) সকাল ৮টা পর্যন্ত বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ কোটি ৮৯ লাখ ৪২ হাজার ৮১২ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩৮ লাখ ৭৫ হাজার ৭ জনের। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৬ কোটি ৩৪ লাখ ৭০ হাজার ৯৩৩ জন।

আরো পড়ুন: ‘ল্যাম্বডা’ স্ট্রেন নিয়ে ডব্লিউএইচওর উদ্বেগ প্রকাশ

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৩ কোটি ৪৪ লাখ ১ হাজার ৭১২ জন। মৃত্যু হয়েছে ৬ লাখ ১৭ হাজার ৮৩ জনের। এসময় পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৬ লাখ ৯৪ হাজার ৮৪৩ জন।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২ কোটি ৯৮ লাখ ৮১ হাজার ৩৫২ জন এবং মারা গেছেন ৩ লাখ ৮৬ হাজার ৭৪০ জন। এসময় পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ২ কোটি ৮৭ লাখ ৫৮ হাজার ৪৪৭ জন।

আক্রান্তে তৃতীয় ও মৃত্যুতে দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা লাতিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিলে এখন পর্যন্ত করোনায় ১ কোটি ৭৮ লাখ ৮৩ হাজার ৭৫০ জন সংক্রমিত হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৮৬৮ জনের। এসময় পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১ কোটি ৬১ লাখ ৮৩ হাজার ৮৪৯ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর গত বছরের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে।

Comments
Loading...