Prottashitoalo

বগুড়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় ব্যবসায়ীকে ছুরিকাঘাত

0 5

বগুড়ায় পাওনা টাকা চাওয়ায় গোস্ত ব্যবসায়ী সোহাগ মোল্লা (৩৮) কে ছুরিকাঘাত করেছে এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা। সোহাগ মোল্লা বগুড়া সদরের গোপালবাড়ী এলাকার সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুস সাত্তার মোল্লার পুত্র।

স্থানীয় ও পরিবারের লোকজন জানান, সোহাগ মোল্লা দীর্ঘ দিন ধরে গোস্ত ব্যবসার সঙ্গে জড়িত। ব্যবসার বেশ কিছু টাকা ক্রেতা সাধারণের মধ্যে বাকি পরে যায়। সেই বাকি টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে সোহাগ মোল্লাকে ছুরিকাঘাতে আহত করে চিহ্নিত সন্ত্রাসী আবু তালেব (৪০) । গত ৬ ডিসেম্বর মঙ্গলবার সন্ধা সাড়ে ৫টায় সোহাগ মোল্লা গাবতলী উপজেলার তরনীহাট হাট থেকে গরু বিক্রি করে ফেরার পথে বগুড়া সদরের পল্লীমঙ্গল শাখারিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে পৌঁছালে সন্ত্রাসী আবু তালেব এর কাছ থেকে পাওনা টাকা চায়। এতে সন্ত্রাসী আবু তালেব ক্ষিপ্ত হয়ে সোহাগ মোল্লাকে এলোপাতাড়ি কিল ঘুষি মারতে থাকে। সন্ত্রাসী আবু তালেবকে তার সন্ত্রাসী কার্যকলাপে সহযোগিতা করে তার আরো দুই সহযোগী বাতাস (৩৩) এবং শফিফুল ইসলাম (৩২)। কিল ঘুষি এক পর্যায়ে সন্ত্রাসী বাতাস ও শফিফুল ইসলাম সোহাগ মোল্লাকে ঝাপটে ধরে তখন সন্ত্রাসী আবু তালেব এর কাছে থাকা বার্মিজ চাকু দিয়ে সোহাগ মোল্লার মাথায় আঘাত করে।

এজহারে উল্লেখ করা হয়, সন্ত্রাসী বাতাস সোহাগ মোল্লার গরু বিক্রির এক লক্ষ বিশ হাজার টাকা ও অপর আরেক আসামী শফিকুল ইসলাম সোহাগ মোল্লার জ্যাকেটের পকেটে থাকা ৫০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নিয়ে ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যায়। উল্লেখিত ২জন বাতাস ও শফিকুল ইসলাম সন্ত্রাসী সদরের গোপালবাড়ী এলাকার বাসিন্দা ও তালেব শাখারিয়া কামার পাড়া গ্রামের বাসিন্দা ।

স্থানীয় লোকজন আরো জানান, ছুরিকাঘাতের পর সোহাগ মোল্লা রাস্তায় পড়ে থাকলে আমরা তাকে উদ্ধার করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাই।

এই বিষয়ে বগুড়া সদর থানার অফিসার ইনচার্জ নূরে আলম সিদ্দিকী জানান, ছুরিকাঘাতের ঘটনার থানায় আহত সোহাগ মোল্লার স্ত্রী একটা লিখিত আকারে এজাহার দায়ের করেছে। এই এজাহারের ভিত্তিতে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করব।

নিজস্ব প্রতিবেদক।

Comments
Loading...