Prottashitoalo

নতুন করে করোনা সংক্রমণ বাড়ছে চীনের ১১ প্রদেশে

0 12

২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। চীনে করোনায় প্রথম কোনো রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। তবে তার ঘোষণা আসে ১১ জানুয়ারি। ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে। পরে বিভিন্ন দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়ে।

করোনার সংক্রমণ মোকাবিলায় চীন সরকার প্রথম থেকেই কড়াকড়ি আরোপ করে আসছে। এরই অংশ হিসেবে দেশটির সরকার আঞ্চলিক সীমান্ত বন্ধ এবং লকডাউন দিয়েছিল। এতে করে করোনা নিয়ন্ত্রণে অনেকাংশে সফল হয় বেইজিং।

কিন্তু ১১ অক্টোবর থেকে চীনের উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে, নতুন এই প্রাদুর্ভাবের সঙ্গে এক প্রবীণ দম্পতির সংশ্লিষ্টতা রয়েছে। তারা পর্যটকদের একটি দলের সঙ্গে সাংহাই থেকে গানসু প্রদেশের শিয়ান ও ইনার মঙ্গোলিয়ায় ভ্রমণ করেছিলেন।

আরো পড়ুন: বিশ্বে একদিনে ৪৬৭৮ জনের মৃত্যু, সংক্রমিত ৩ লক্ষাধিক

রবিবার দেশটির এক স্বাস্থ্য কর্মকর্তা জানিয়েছেন, চীনের ১১টি প্রদেশে নতুন করে করোনার সংক্রমণ বাড়ছে। আগামী দিনগুলোতে আক্রান্তের সংখ্যা ও সংক্রমিত এলাকার পরিধি বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ওই কর্মকর্তা।

রবিবার নিয়মিত প্রেস ব্রিফিংয়ে ন্যাশনাল হেলথ কমিশনের কর্মকর্তা উ লিয়াংইউ জানিয়েছেন, বিদেশ থাকা ব্যক্তিদের মাধ্যমে করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের বিস্তার ঘটেছে। এর ফলে নতুন করে সংক্রমণ বাড়ছে।

কমিশনের মুখপাত্র মি ফেং জানিয়েছেন, গত ১১ অক্টোবর থেকে ১১টি প্রদেশে সংক্রমণের বিস্তার ঘটেছে। আক্রান্তদের অধিকাংশের আন্তঃপ্রদেশ ভ্রমণের ইতিহাস রয়েছে।

শনিবার চীনে নতুন করে ২৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এদের মধ্যে সাত জন ইনার মঙ্গোলিয়ায়, ছয় জন গানসুর, ছয় জন নিংশিয়ার, চার জন বেইজিংয়ের, এক জন হুনানের এবং এক জন শানিজির বাসিন্দা। রাজধানী বেইজিংয়ের তিনটি জেলায় নতুন করে সংক্রমণ ঘটছে।

Comments
Loading...