Prottashitoalo

তিমির পেটে গিয়েও জীবিত বেরিয়ে এলেন তিনি!

0 5

যুক্তরাষ্ট্রে মাইকেল প্যাকার্ড নামের এক লবস্টার শিকারিকে আস্ত গিলে ফেলেছিল বিশাল আকৃতির একটি হ্যাম্পব্যাক তিমি। প্রায় ৩০-৪০ সেকেন্ড তিমির পেটে থাকার পর ওই লবস্টার শিকারি বের হয়ে আসেন।

জানা গেছে, এক পর্যায় তিমিটি তার মুখ থেকে লালার সঙ্গে বের করে তাকে। এতে প্যাকার্ডের পায়ের গোড়ালি মচকে যাওয়া ছাড়া বড় কোনো ক্ষতি হয়নি। প্রায় ৪০ বছর ধরে এই ডুবুরি পেশায় নিয়োজিত মাইকেল প্যাকার্ড (৫৬)। তবে তার স্ত্রী দীর্ঘদিন ধরে এ চাকরি ছাড়ার জন্য অনুরোধ করছেন তাকে।

প্যাকার্ড জানিয়েছেন, শুক্রবার সকালে সহযোগীদের নিয়ে নৌকা করে হেরিং কোভে যান। সেখানকার পরিবেশ অনেক সুন্দর ছিল এবং পানিতে দৃষ্টিসীমা প্রায় ২০ ফুট পর্যন্ত ছিল। স্কুবা গিয়ার নিয়ে পানিতে নেমে ডুব দেয়ার একটু পরই বিশাল ধাক্কা অনুভব করেন এবং তার কাছে সবকিছু অন্ধকার মনে হয়।

প্রথমে ভেবেছিলেন হয়তো সাদা বড় তিমির হামলার শিকার হয়েছেন। এসব তিমি ওই এলাকায় সাঁতরে বেড়ায়। এরপর আশপাশে অনুভব করেন কোনো দাঁত নেই। তখনই বুঝতে পারেন তিনি তিমির ভিতরে। তিমিটি তাকে গিলে ফেলার জন্য চেষ্টা করছে। আর এখনই হয়তো মারা যাবেন তিনি।

প্যাকার্ড আরও বলেন, আমি স্ত্রী ও দুই পুত্রের কথা ভাবতেই হঠাৎ তিমিটি পানির ওপরে ভেসে উঠে মাথা নাড়তে থাকে। আমাকে বাতাসে ছুঁড়ে ফেলা হয় আর আমি পানিতে পড়ে যাই। পানিতে কিছুক্ষণ ভেসে রইলাম। কিন্তু কিছুতেই বিশ্বাস করতে পারছিলাম না। তবে বেঁচে ফিরে নিজেকে অনেক সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।

হ্যাম্পব্যাক তিমি ৫০ ফিট পর্যন্ত লম্বা হতে পারে এবং একেকটির ওজন হতে পারে প্রায় ৩৬ টন। ওয়ার্ল্ড ওয়াইল্ড লাইফ ফান্ডের তথ্য অনুযায়ী, এখন বিশ্বে এ রকম তিমির সংখ্যা প্রায় ৬০ হাজার। এমন তিমির পেটে ঢুকেও বেঁচে ফিরে নিজেও অবাক মাইকেল প্যাকার্ড।

Comments
Loading...