Prottashitoalo

চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন ফজলে রাব্বী মিয়া

0 1

গাইবান্ধায় বাবা-মায়ের পাশে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন জাতীয় সংসদের প্রয়াত ডেপুটি স্পিকার ও গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বী মিয়া।

সোমবার (২৫ জুলাই) বিকেলে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে সমাহিত করা হয়।

এর আগে দুপুরে ডেপুটি স্পিকারের মরদেহ গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া কাজী আজাহার আলী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে পৌঁছায়। ঢাকা থেকে সশস্ত্র বাহিনীর হেলিকপ্টারে তার মরদেহ নিজ এলাকায় নেয়া হয়।

সেখান থেকে তার মরদেহ সর্বসাধারণের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য রাখা হয় ভরতখালী উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে। ওই মাঠে বিকেল ৩টায় দ্বিতীয় জানাজা শেষে তার মরদেহ নিজ বাড়ি গটিয়া গ্রামে নেয়া হয়।

বিকেল সাড়ে ৫টায় সেখানে তৃতীয় জানাজা শেষে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তাকে পারিবারিক কবরস্থানে সমাহিত করা হয়।

আরো পড়ুন: ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী মিয়া আর নেই

এদিকে সকাল ১০টা ৪৫ মিনিটে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ মাঠে তার এর আগে প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়। জানাজায় ইমামতি করেন সুপ্রিম কোর্ট জামে মসজিদের ইমাম আবু সালেহ মো. সলিমউল্লাহ। জানাজায় অংশ নেন প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আবদুল মোমেন, কৃষিমন্ত্রী আবদুর রাজ্জাক, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মাহবুব আলী, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস, আপিল বিভাগের বিচারপতি, হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতি সভাপতি, সম্পাদকসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ।

শুক্রবার (২২ জুলাই) দিবাগত রাতে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন। তিনি দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন। ফজলে রাব্বী মিয়া ১৯৪৬ সালে গাইবান্ধায় জন্মগ্রহণ করেন।

Comments
Loading...