Prottashitoalo

ক্ষমা চেয়েছেন পরীমনি আইনজীবী

0 4

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে করা মামলায় ঢাকাই চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমণির স্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত। স্থানীয় একজন জিম্মাদার ও পঞ্চাশ হাজার টাকা বন্ডে মামলার চার্জশিট দাখিল পর্যন্ত তার জামিন মঞ্জুর করা হয়। এদিন আদালতে আসতে দেরি হয় পরীমণির। এজন্য ক্ষমা চেয়েছেন তার আইনজীবী।

রবিবার (১০ অক্টোবর) ঢাকা মহানগর হাকিম সত্যব্রত শিকদারের আদালতে পরীমণির আইনজীবী তার স্থায়ী জামিনের আবেদন করলে আদালত তার জামিন মঞ্জুর করেন। এর আগে দুপুর ১টা ৪০ মিনিটে আদালতে যান পরীমণি। আদালতে হাজিরা দিতে এসে ছয়তলা সিঁড়ি বেয়ে উঠতে গিয়ে হাঁপিয়ে ওঠে অসুস্থ হয়ে পড়েন পরীমণি। শুনানির শেষ পর্যায়ে আদালত কক্ষে এজলাসের ভেতরেও শুয়ে থাকতে দেখা যায় তাকে। পরবর্তীতে কর্মরত আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সহায়তায় ভিড় সরিয়ে তাকে গাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়।

এর আগে আদালতে পরীমণির জামিনের বিরোধিতা করেন ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতের প্রধান কৌঁসুলি আবদুল্লাহ আবু।

তিনি আদালতে বলেন, এ মামলায় শুনানির জন্য আজকের দিন আগে থেকে ধার্য ছিলো। সাধারণত সকাল ১০টায় প্রত্যেক আসামি আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করেন। কিন্তু আসামি পরীমণি বেলা ১টা পর্যন্ত আদালতে হাজির হননি। সবাইকে আইন মেনে চলতে হবে। সঠিক সময়ে আদালতে হাজির হতে হবে। আদালতের প্রতি সম্মান দেখাতে হবে।

প্রধান কৌঁসুলির বক্তব্যের পর পরীমণির আইনজীবী নীলাঞ্জনা রিফাত সুরভী আদালতে বলেন, ‘স্যার, এরকম ভুল আর হবে না।’

আরো পড়ুন:- অর্থ আত্মসাৎ: সাবেক যুগ্ম-সচিবের বিরুদ্ধে মামলা

গত ৪ আগস্ট সুনির্দিষ্ট তথ্যের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে পরীমণিকে তার বনানীর বাসা থেকে আটক করে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। পরদিন ৫ আগস্ট বিকেল ৫টা ১২ মিনিটে পরীমনি, চলচ্চিত্র প্রযোজক রাজ ও তাদের দুই সহযোগীকে কালো একটি মাইক্রোবাসে বনানী থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর র‌্যাব বাদী হয়ে বনানী থানায় পরীমণি ও তার সহযোগী দীপুর বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা করে। সেই মামলায় পরীমণিকে আদালতে হাজির করলে প্রথমে চারদিনের রিমান্ড এবং পরে আরও দুই দফায় তাকে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

Comments
Loading...