Prottashitoalo

করোনা সংক্রমণে রেড জোনে ঢাকা ও রাঙামাটি

0 21

দেশে করোনাভাইরাসের প্রথম সংক্রমণ শনাক্ত হয় ২০২০ সালের ৮ মার্চ। এরপর ২০২১ সালের মার্চ থেকে দেশে সংক্রমণের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হয়। সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে ৫ এপ্রিল থেকে লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। লকডাউনের প্রভাবে এপ্রিলের মাঝামাঝি সময় থেকে সংক্রমণ কমতে শুরু করে। তবে পবিত্র ঈদুল ফিতরের পর মে মাসের মাঝামাঝি সময় থেকে সংক্রমণে আবার ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা তৈরি হয়। সবশেষ সেপ্টম্বর থেকে দেশে করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে।

কিন্তু চলতি বছরের শুরু থেকেই আবারো চোখ রাঙাতে শুরু করেছে করোনা। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মকর্তারাও মনে করছেন- আসছে ফেব্রুয়ারি, মার্চ এবং এপ্রিলে সংক্রমণ বাড়তে পারে। এই আশঙ্কা থেকেই সরকারের তরফে ইতিমধ্যেই বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার থেকে এই বিধিনিষেধ কার্যকর হবে।

এদিকে ঢাকা ও রাঙামাটি জেলাকে করোনা সংক্রমণে রেড জোন হিসেবে চিহিৃত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। এছাড়া হলুদ জোন বা মধ্যম ঝুঁকিতে রয়েছে ৬টি জেলা। গ্রিন জোনে রয়েছে ৫৪টি জেলা।

আরো পড়ুন: বিশ্বে দৈনিক শনাক্ত ২৭ লাখ ৮৪ সহস্রাধিক, মৃত্যু ৮১৬৭

অপরদিকে খুবই কমসংখ্যক টেস্ট করার তালিকায় রয়েছে ২টি জেলা। গত এক সপ্তাহের তথ্য বিশ্লেষণ করে এ তথ্য জানিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

প্রতিষ্ঠানটির তথ্য মতে, রাজধানীতে করোনা সংক্রমণের হার ১২.৯০ শতাংশ। রাঙামাটিতে করোনা সংক্রমণের হার ১০ শতাংশ। এছাড়া হলুদ জোন বা মধ্যম ঝুঁকিতে আছে দেশের সীমান্তবর্তী জেলা যশোর, রাজশাহী, দিনাজপুর, লালমনিরহাট, নাটোর ও রংপুর জেলা। আর সংক্রমণের গ্রিন জোন বা ক্ষীণ ঝুঁকিতে আছে ৫৪ জেলা। অন্যদিকে পঞ্চগড় ও বান্দরবান জেলায় নমুনা পরীক্ষার হার খুবই কম হয়েছে।

Comments
Loading...