Prottashitoalo

‘ওমিক্রন নয়, যুক্তরাষ্ট্রে মৃত্যু বেড়েছে ডেল্টায়’

0 25

২০২০ সালের প্রথম ভাগ থেকেই বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে পড়েছিল করোনা সংক্রমণ। বিগত দুই বছরে অজানা শত্রুর সঙ্গে চেনা পরিচিতি অনেকটাই হয়ে গেলেও, সংক্রমণের ইতিহাসে এতটা ভয়াবহ রূপ আগে কখনো দেখা যায়নি। গত ২৪ ঘণ্টায় আগের সব রেকর্ড ভেঙে বিশ্বে আবারো সর্বোচ্চ সংখ্যক মানুষের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এসময়ে নতুন রোগী শনাক্ত হয়েছেন ৩১ লাখ ৮৬ হাজার ২৫৪ জন।

এদিকে গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রে। নতুন করে দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৬ হাজার ৪৯৩ জন এবং মারা গেছেন ১ হাজার ৯৬৯ জন।

এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের শীর্ষ ক্ষমতাধর এ দেশটিতে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে মোট শনাক্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৬ কোটি ৫২ লাখ ৩৬ হাজার ৪৭৫ জন। মোট মৃত্যু হয়েছে ৮ লাখ ৬৯ হাজার ২১২ জনের।

ওমক্রিনের প্রভাবে আমেরিকায় সংক্রমণ বাড়লেও, করোনায় সাম্প্রতিক মৃত্যুহার বৃদ্ধির জন্য মূলত ডেল্টা ভ্যারিয়্যান্টই দায়ী বলে জানিয়েছে, দেশটির রোগ নিয়ন্ত্রণ, গবেষণা ও প্রতিরোধ সংস্থা সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন ‘সিডিসি’।

আরো পড়ুন: ‘টিকাহীনদের জন্য ওমিক্রন ঝুঁকির কারণ’

বৃহস্পতিবার সিডিসির পরিচালক রশেল ওয়ালেনস্কি এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এ সম্পর্কে বলেন, ‘ওমিক্রনে আক্রান্তদের কয়েকজন ইতোমধ্যে মারা গেছেন- এটি সত্য, কিন্তু আমাদের বিশ্বাস, গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশে যে উচ্চ মৃত্যুহার দেখা যাচ্ছে, তার জন্য দায়ী ডেল্টা’।

তবে যুক্তরাষ্ট্রে করোনায় আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের সংখ্যা যে ওমিক্রনের কারণে বাড়ছে, সংবাদ সম্মেলনে তা স্বীকার করেছেন সিডিসির পরিচালক।

এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘বর্তমানে যারা করোনায় গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন, তাদের ৯০ শতাংশই ওমিক্রনে আক্রান্ত’। সূত্র: রয়টার্স

Comments
Loading...